ইঞ্জিনিয়ারদের সরকারী চাকুরীতে আবেদন সংক্রান্ত কিছু কথা

0
32

যে কথাগুলো লিখতে যাচ্ছি, তা ইতিপূর্বে অনেক বার লিখা হয়েছে এবং প্রায় প্রত্যকেরই জানা। কিন্তু সদ্য পাস করা ইঞ্জিনিয়ারদের জ্ঞাতার্থে পুনরায় লিখছি ।

  • বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষাগত যোগ্যতার ব্যাপারে যে বিষয়/টেকনোলজি/ট্রেড থেকে পাস করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে, সেই বিষয় ব্যতিত অন্য কোন বিষয়ে পাস করা প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। বিজ্ঞপ্তিতে অনেক সময় ১ম শ্রেণীর ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী বা ন্যূনতম ২য় শ্রেণীর ডিগ্রী চেয়ে থাকে। এক্ষেত্রে যোগ্যতার ঘাটতি থাকলে আবেদন না করায় উত্তম।
    জিপিএ- ৩.০০ বা তার বেশি= ১ম শ্রেণী।
    জিপিএ- ২.২৫ থেকে ৩.০০ এর নিচে= ২য় শ্রেণী।
    জিপিএ- ২.২৫ এর নিচে= ৩য় শ্রেণী।
  • ৮ম সেমিস্টারে অধ্যয়ন করছেন বা শেষ করেছেন কিন্তু চূড়ান্ত ফল প্রকাশ হয়নি, এ অবস্থায় কোন সরকারী চাকুরীর জন্য আবেদন করতে পারবেন না।মূল সার্টিফিকেট হাতে পান নি, কিন্তু চূড়ায় ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে এ অবস্থায় সরকারী চাকুরীর জন্য আবেদন করার ক্ষেত্রে-
  1.  যদি অনলাইনে আবেদন করতে হয়, তাহলে মূল সার্টিফিকেট প্রয়োজন নেই, শুধু মাত্র মৌখিক পরীক্ষার সময় প্রয়োজন হবে। সেক্ষেত্রে তখনও সার্টিফিকেট হাতে না পেলে বাকাশিবো থেকে সাময়িক সার্টিফিকেট উঠাতে পারবেন।
    “বিপিএসসি” এর মাধ্যমে হলে প্রিলিমিনারী বা বাছাই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর লিখিত পরীক্ষার পূর্বে “বিপিএসসি ফরম-৩” এর সাথে সার্টিফিকেটের ফটোকপি জমা দিতে হবে। সেক্ষেত্রে সার্টিফিকেট হাতে না পেলে সাময়িক সার্টিফিকেট দিয়েও ফরম জমা দিতে পারবেন।
  2.  হাতে লিখিত ফরমে আবেদন করতে হলে যদি প্রাথমিক অবস্থায় সার্টিফিকেটের ফটোকপি চেয়ে থাকে তাহলে সার্টিফিকেট ছাড়া আবেদন করতে পারবেন না, যদি না চেয়ে থাকে তাহলে আবেদন করতে পারবেন। শুধুমাত্র মৌখিক পরীক্ষার সময় প্রয়োজন হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here