ঠোঁটের প্রতিদিনের সাজ

0
99

মুখের সৌন্দর্যের অনেকখানি অংশই নির্ভর করে ঠোঁটের সৌন্দর্যের উপর। তাই যেকোনো সাজে ঠোঁটের প্রাধান্য অনেক। পার্টি সাজ হোক আর সাধারন সাজ হোক, ঠোঁটকে সঠিকরূপে সাজাতে পারলে মুখের সৌন্দর্য বেড়ে যায় বহুগুনে। তাই ঠোঁটের প্রতিদিনের সাজে মেকআপ সম্পর্কে আজ জানানো হল,

* যেহেতু আপনি প্রতিদিন ব্যবহারের লিপস্টিক নির্বাচন করবেন। তাই এক্ষেত্রে সবসময় জনপ্রিয় আর নামী দামী ব্র্যান্ডের লিপস্টিক বা লিপগ্লস কিনতে হবে। কেনার আগে রং পরীক্ষা করতে কখনোই ঠোঁটে লাগানো উচিত না। রং পরীক্ষা করে হাটের তালু ব্যবহার করতে হবে।

* প্রতিদিনের ব্যবহারে হালকা রং নির্বাচন করুন।
* লিপস্টিক সবসময় ফ্রিজে সংরক্ষন করতে হবে।
* ঠোঁট সাজানো শুরুর আগে প্রথমেই ঠোঁট পরিষ্কার করে নিতে হবে। এরপর ঠোঁটে সামান্য ফাউন্ডেশন লাগিয়ে নিতে হবে।
* ফাউন্ডেশন লাগানোর পর, ত্বকের রঙের সাথে মিলিয়ে লিপলাইনার ব্যবহার করতে হবে। লিপলাইনার ব্যবহারের সময় ঠোঁটের চারপাশে পছন্দমত অংশ জুড়ে ঠোঁটের সীমারেখা এঁকে নিতে হবে।
* এরপর পছন্দমত লিপস্টিক দিয়ে আউটলাইন বরাবর লিপস্টিক লাগাতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, লিপস্টিক যেন লিপলাইনারের সীমারেখার বাইরে বেরিয়ে না যায়। আর লিপস্টিকের রং যেন লিপলাইনারের রঙের সাথে পুরোপুরি মিলে যায়।
* লিপস্টিক লাগানোর পর, একটি টিস্যুপেপার নিয়ে দুই ঠোঁটের মাঝখানে রেখে, ঠোঁট জোড়া দিয়ে চিপে দিতে হবে। এতে বাড়তি রং উঠে আসবে এবং লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হবে।
* লিপলাইনার ব্যবহারের আগে জেনে রাখা ভালো যে, মোটা ঠোঁট চিকন দেখাতে, ঠোঁটের ভিতরে লিপলাইনার দিয়ে সীমারেখা আঁকতে হবে। প্রথমে সাধারনভাবে ঠোঁটের চারপাশে এমনভাবে আউটলাইন আঁকতে হবে, যেন ঠোঁটের দুই কোণার লাইন সমান হয়। এরপর লিপস্টিকের প্রলেপ লাগাতে হবে।
* চিকন ঠোঁট মোটা করতে চাইলে, লিপলাইনারের সীমারেখা টানতে হবে ঠোঁটের রেখার কিছুটা বাইরে। সীমারেখা এঁকে লিপস্টিক দিয়ে পুরো ঠোঁটে রাঙিয়ে দিতে হবে।
* আরেকটা বিষয় জেনে রাখা ভালো যে, মোটা ঠোঁটে হালকা রংয়ের লিপস্টিক আর চিকন ঠোঁটে গাঢ় লিপস্টিক মানানসই।
* যাদের ঠোঁট ফাটার সমস্যা আছে তারা লিপস্টিক ব্যবহারের আগে লিপবাম লাগিয়ে নিন। এবং পরিবেশ, আবহাওয়া, অনুষ্ঠান ভেদে লিপস্টিকের রং নির্বাচন করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here