সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া ১০ ফোন

0
87

এক দশক ধরে স্মার্টফোন বাজারে সামনের সারিতে রয়েছে অ্যাপল। ২০১৬ সালে বাজারে সবচেয়ে বিক্রি হওয়া ফোনটি অ্যাপলের। যুক্তরাজ্যভিত্তিক বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইএইচএস মার্কিট ২০১৬ সালের সবচেয়ে বিক্রি হওয়া ১০টি ফোনের তালিকা প্রকাশ করেছে। সে তালিকায় শীর্ষে রয়েছে আইফোন ৬এস। প্রতি প্রান্তিকে স্মার্টফোন বাজারে আসার হিসাব ধরে তালিকা তৈরি করে আইএইচএস মার্কিট। বিশ্বের ৩৫০টি স্মার্টফোন মডেলের প্রান্তিক তথ্য বিবেচনা করে এ তালিকা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

.
আইফোন ৬এসআইফোন ৬এসআইফোন ৬এস
২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে বাজারে আসে আইফোন ৬এস। এ৯ প্রসেসরে চলে ফোনটি। এটি আগের প্রজন্মের এ৮ চিপসেটের চেয়ে ৭০ গুণ দ্রুতগতিতে কাজ করতে পারে। থ্রিডি টাচ, দুই জিবি র‍্যাম, পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল আইসাইট ক্যামেরা ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে স্মার্টফোনটিতে। নতুন আইফোন সম্পর্কে টিম কুক বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত স্মার্টফোন এটি।

.
আইফোন ৭আইফোন ৭আইফোন ৭
২০১৬ সালে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া ফোনগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে আইফোন ৭। ৪ দশমিক ৭ ইঞ্চি মাপের রেটিনা এইচডি ডিসপ্লেযুক্ত ফোনটিতে কোয়াড কোর অ্যাপল এ১০ ফিউশন প্রসেসর রয়েছে। এটি এ৯-এর চেয়ে ৪০ শতাংশ দ্রুতগতির। আইফোনের সামনে ৭ মেগাপিক্সেলের ফেসটাইম এইচডি ও পেছনে ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। দুটি ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার মধ্যে একটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ও অন্যটি ৫৬ মিলিমিটার টেলিফটো লেন্স।

.
আইফোন ৭ প্লাসআইফোন ৭ প্লাসআইফোন ৭ প্লাস
আইএইচএস র‍্যাঙ্কিংয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে অ্যাপলের বড় মাপের ফ্ল্যাগশিপ ফোন আইফোন ৭ প্লাস। সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত ফোনটিতে এ১০ প্রসেসর ও ২ জিবি র‍্যাম রয়েছে। টেলিফটো লেন্সসহ পেছনে ১২ মেগাপিক্সেলর ক্যামেরা ও সামনে ৭ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে।

.
আইফোন ৬এস প্লাসআইফোন ৬এস প্লাসআইফোন ৬এস প্লাস
সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে তালিকার চতুর্থ স্থানে রয়েছে আইফোন ৬ প্লাস। আইফোন ৬এসের বড় মাপের সংস্করণ এটি। ক্যামেরা ও ব্যাটারি ছাড়া আইফোন ৬এসের সঙ্গে ৬এস প্লাসের তেমন কোনো পার্থক্য নেই। ৬এস প্লাসের ডিসপ্লে ৫ দশমিক ৫ ইঞ্চি।

.
গ্যালাক্সি এস৭ এজগ্যালাক্সি এস৭ এজগ্যালাক্সি এস৭ এজ
গ্যালাক্সি এস৭ এজ দিয়ে গত বছরের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া ফোনের তালিকায় পঞ্চম স্থানে ঢুকেছে স্যামসাং। ২০১৬ সালের মার্চ মাসে বাজারে আসে গ্যালাক্সি এস৭ এজ। সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের ডিসপ্লেযুক্ত ফোনটিতে ব্যাটারি ৩ হাজার ৬০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের। এর ওজন ১৫৭ গ্রাম। কোয়াড এইচডি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লেযুক্ত ফোনটির রেজল্যুশন ২৫৬০ বাই ১৪৪০ পিক্সেল। ৬৪ বিটের অক্টাকোর এক্সিনোস ৮৮৯০ চিপসেটের ফোনটিতে ৪ জিবি র‍্যাম, পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আছে।

.
গ্যালাক্সি জে৩গ্যালাক্সি জে৩গ্যালাক্সি জে৩
সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া ফোনের তালিকায় ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে গ্যালাক্সি জে৩। ২০১৬ সালের মার্চে বাজারে আসা ফোনটি সাশ্রয়ী স্মার্টফোন। এতে এস বাইক নামের বিশেষ ফিচার আছে। পাঁচ ইঞ্চি মাপের এইচডি ডিসপ্লে, ১ দশমিক ৫ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর কোয়ালকম প্রসেসর, ১ দশমিক ৫ জিবি র‍্যাম ও ৮ জিবি স্টোরেজ আছে এতে।

.
অপো এ৫৩অপো এ৫৩অপো এ৫৩
অ্যাপল ও স্যামসাং বাদে সেরা ১০ ফোনের তালিকায় স্থান পাওয়া একটি মডেল হচ্ছে চীনের স্মার্টফোন নির্মাতা অপোর এ৫৩ মডেলটি। মধ্যম সারির অপো এ৫৩ মডেলটি ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে বাজারে আসে। ডুয়াল সিমের স্মার্টফোনটিতে সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি এইচডি ডিসপ্লে রয়েছে। ১৬৫ গ্রাম ওজনের ফোনটিতে অক্টাকোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬১৬ প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম ও ৩ হাজার ৭৫ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি রয়েছে।

.
স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৫স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৫স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৫
গ্যালাক্সি জে৫ ফোনটির ২০১৬ সংস্করণটি সবচেয়ে বিক্রি হওয়া ফোনের তালিকায় অষ্টম স্থান দখল করেছে। ৫ দশমিক ২ ইঞ্চি মাপের ফোনটিতে সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে, ১ দশমিক ২ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর স্ন্যাপড্রাগন ৪১০ প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম ও ৩ হাজার ১০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি রয়েছে।

.
স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭
১৫২ গ্রাম ওজনের ৫ দশমিক ১ ইঞ্চি মাপের ফোনটিতে ব্যাটারি তিন হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের। ৬৪ বিট অক্টাকোর এক্সিনোস ৮৮৯০ প্রসেসর, ৪ জিবি র‍্যাম, ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা আছে এতে।

.
স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৭স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৭স্যামসাং গ্যালাক্সি জে৭
সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের গ্যালাক্সি জে৭ মডেলের ২০১৬ সংস্করণটি ১০ নম্বর অবস্থানে রয়েছে। সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লের ফোনটিতে এক্সিনোস অক্টাকোর প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম ও ৩ হাজার ৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি আছে। ফোনটির পেছনে ১৩ ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। তথ্যসূত্র: গ্যাজেটস নাউ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here