সিসিএনএ সার্টিফায়েডদের জন্য কাজের ক্ষেত্র

0
53
ccna
ccna

সিসিএনএ বর্তমানে সময়োপযুগী একটি ক্যারিয়ারবান্ধব প্রফেশনাল কোর্স। নেটওয়ার্কিংয়ের ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী হলে এ কোর্সের বিকল্প নেই। যারা অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী নন, অফিস চাকরি যাদের জন্য খুব বেশি প্রয়োজন, তাদের নেটওয়ার্কিং শেখা উচিত। শুধু নেটওয়ার্কিং শিখলেই হবে না, সেই সাথে সিসিএনএ সার্টিফিকেটও অর্জন করতে হবে। আর এ সার্টিফিকেট থাকলে বাংলাদেশে সবচেয়ে সেরা চাকরির সেক্টরগুলোতেই (ব্যাংক, টেলিকমিউনিকেশন, টিভি চ্যানেল, কর্পোরেট কোম্পানি) চাকরির ব্যাপারে আপনার চাহিদা তৈরি হবে। মজার ব্যাপার, এসব সেক্টরগুলোয় নেটওয়ার্কিং এক্সপার্ট হিসেবে ঢুকতে হলে এডুকেশন ব্যাকগ্রাউন্ডটা খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ নয়। যেকোনো সেক্টরে গ্র্যাজুয়েট হলেই হবে। শুধু সিসিএনএ সার্টিফিকেট থাকতে হবে। যেকোনো কোর্স করার পরিকল্পনার শুরুতে তার ভবিষ্যৎ কী, তা আগে জেনে নিয়ে তারপর কোর্সের জন্য টাকা খরচ করা উচিত। সিসিএনএ কোর্স শিখে কাজের সেক্টর :
টেলিকমিউনিকেশন সেক্টর
বাংলাদেশে বর্তমানে সাতটি মোবাইল কোম্পানি ও কয়েকটি বেসরকারি ল্যান্ডফোন কোম্পানি রয়েছে। এগুলোতে কিছু অ্যাডমিনিস্ট্রেশন সেকশন ছাড়া ৭০ শতাংশ লোককেই হতে হয় নেটওয়ার্কিং বিষয়ে দক্ষ। এ ক্ষেত্রে সব জায়গায়ই সিসিএনএ সার্টিফায়েড লোককেই শুধু ইন্টারভিউর জন্য আবেদন করার সুযোগ দেয়া হয়। একজন সিসিএনএ সার্টিফায়েড লোককে এসব সেক্টরে চাকরিতে শুরুর দিকে বেতন দেয়া হয় ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা। এ বেতন দক্ষতা অনুযায়ি ১ থেকে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।
টিভি চ্যানেলের আইটি বিভাগ
প্রতিটি টিভি চ্যানেলের আইটি বিভাগ থাকে। আমরা টিভিতে যে ভিডিওগুলো দেখি তা দেখতে পাওয়ার পেছনে গুরুদায়িত্ব পালন করে থাকে টিভি চ্যানেলের আইটি বিভাগের নেটওয়ার্কিং টিম। এছাড়া পুরো অফিসের ভেতরের ইন্টারনাল নেটওয়ার্কিংটাও তাদের কাজ। এমন অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যেখানে সিসিএনএ সার্টিফায়েড ছাড়া কেউ সেখানে চাকরির জন্য আবেদন করতেই পারবে না। সেই পোস্টে এন্ট্রি লেভেলের বেতন হয়ে থাকে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। যারা আরেকটু অভিজ্ঞ তাদের বেতন ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকাও পর্যন্ত হতে দেখা গেছে।
ব্যাংকের আইটি বিভাগ
বাংলাদেশের মানুষদের জন্য সবচেয়ে আকাঙিক্ষত চাকরির সেক্টরগুলোতে সবার প্রথমেই থাকে ব্যাংক। এরপর আসে টেলিকমিউনিকেশন সেক্টর, এরপর টিভি চ্যানেল। প্রতিটি ব্যাংকে প্রচুর নেটওয়ার্কিং এক্সপার্ট থাকে। আর তারাই ব্যাংকে ডাটা সেন্টার, অনলাইন ব্যাংকিং, বুথ, কার্ড ডিভিশনগুলো মেইনটেইন করে। বিশাল সংখ্যক নেটওয়ার্কিং এক্সপার্ট প্রয়োজন একটি ব্যাংকের জন্য। কোনো কোনো ব্যাংকে চাকরির জন্য আলাদাভাবে সিসিএনএ কোর্স সম্পন্ন করে সার্টিফিকেট নিতে হয়।
আইএসপি কোম্পানি
যেগুলো ইন্টারনেট সার্ভিস কোম্পানি, সেগুলোকে বলে আইএসপি কোম্পানি। যেহেতু এসব কোম্পানি ইন্টারনেট সার্ভিস দেয়। সুতরাং এসব প্রতিষ্ঠানে শুধু নেটওয়ার্কিং এক্সপার্টরাই চাকরি করতে পারে। এসব প্রতিষ্ঠানেও চাকরির জন্য সিসিএনএ সার্টিফিকেট ছাড়া কোনো আবেদন করার সুযোগ নেই। এসব প্রতিষ্ঠানে চাকরির শুরুতে বেতন ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। দক্ষতা অর্জনের সাথে বেতনও বাড়তে থাকে।
বিভিন্ন ডাটা সেন্টার
বাংলাদেশেও এখন ডাটা সেন্টার তৈরি হচ্ছে। ইতোমধ্যে গাজীপুরে হাইটেক পার্কের আওতাধীন ডাটা সেন্টার তৈরি হচ্ছে, যা বিশ্বে পঞ্চম বড় ডাটা সেন্টার। এ ডাটা সেন্টারে বিপুলসংখ্যক নেটওয়ার্কিং এক্সপার্টের চাকরির ব্যবস্থা হবে। শুধু তাই নয়, এর কাজ শেষ হওয়ার পর বাংলাদেশের তরুণদের মধ্যে নেটওয়ার্কিং শেখার এবং সিসিএনএ সার্টিফায়েড হওয়ার ধুম পড়ে যাবে। দেশে ইতোমধ্যে অনেক ছোট ছোট ডাটা সেন্টার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। সেসব প্রতিষ্ঠানেও প্রচুর নেটওয়ার্কিং এক্সপার্টের প্রয়োজন রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে শুরুতেই বেতন ২০ হাজার টাকা। অভিজ্ঞদের বেতন ১ লাখ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।
কর্পোরেট কোম্পানির আইটি বিভাগ
খুব কম অফিস আছে যেগুলো ইন্টারনেট ছাড়া কিংবা কমপিউটার ছাড়া চালানো সম্ভব। যেসব অফিসে ১৫টি কমপিউটার ও ইন্টারনেটের ব্যবহার রয়েছে, সেসব কোম্পানিতেই নেটওয়ার্কিং এক্সপার্ট প্রয়োজন রয়েছে। প্রতিটি গার্মেন্ট কোম্পানি থেকে শুরু করে মোটামুটি প্রতিটি বড় কোম্পানিতেই কয়েকজন নেটওয়ার্কিং এক্সপার্ট প্রয়োজন। কোম্পানি কত বড়, তার ওপর বেতন নির্ভর করে এসব নেটওয়ার্কিং এক্সপার্টদের। অনলাইনেও নেটওয়ার্কিংবিষয়ক অনেক কাজ রয়েছে। এগুলোর চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।
নেটওয়ার্কিং সম্পর্কিত কাজ শিখে অনলাইনে আয়
মার্কেটপ্লেসে এ সম্পর্কিত কাজ করে এ ধরনের কয়েক জনের প্রোফাইল লিঙ্ক শেয়ার দেয়া হলো।
www.freelancer.com/work/Linux/1/
www.odesk.com/o/profiles/browse/?q=ccna
এ লিঙ্কগুলো ভিজিট করে দেখুন, তাদের ঘণ্টা অনুযায়ী রেট কত? তাহলেই আউটসোর্সিংয়ের ক্ষেত্রে চাহিদা বোঝা যাবে সহজে। ইল্যান্সে বর্তমানে নেটওয়ার্কিং সম্পর্কিত কতগুলো কাজ আছে, তা জানার জন্য www.elance.com/trends/skills_central-এ যেতে হবে।
উন্নত দেশগুলো সিসিএনএ সার্টিফায়েডদের জন্য চাকরির স্বর্গভূমি
যারা অন্য দেশে যাচ্ছেন ভালো ক্যারিয়ার গড়ার উদ্দেশে, তারা যাওয়ার আগে সিসিএনএ সার্টিফায়েড হয়ে তারপর যেতে পারেন। অনেক ভালো একটা অবস্থান তাহলে তৈরি করতে পারবেন। আমাদের দেশ থেকে যারাই অন্য দেশে যান, তারা সাধারণত দক্ষ চাকরিগুলো করেন না। কিন্তু যদি সিসিএনএ বিষয়ে দক্ষ হয়ে গেলে ভালো চাকরি খুব সহজেই জোগাড় করতে পারবেন। বেতন কেমন হতে পারে, সেটি এখানে উল্লেখ না করে চাকরির বিজ্ঞাপনের লিঙ্ক শেয়ার করা হলো।
মালয়েশিয়াতে চাকরির বিজ্ঞপ্তি
job-search.jobstreet.com.my/malaysia/search/network-engineer-with-ccna-jobs
আমেরিকাতে চাকরির বিজ্ঞপ্তি
payscale.com/research/US/Certification=Cisco_Certified_Network_Associate_(CCNA)/Salary
payscale.com/research/US/Certification=Cisco_Certified_Network_Associate_(CCNA)/Salary
usa.recruit.net/search-ccna-jobs
সিঙ্গাপুরে চাকরির বিজ্ঞপ্তি
singapore.recruit.net/search-network-ccna-jobs
সময় নষ্ট না করে নিজেকে দক্ষ করুন এ বিষয়ে। তাহলে বেকার হিসেবে ভবিষ্যতে চিন্তা করতে হবে না। বর্তমান বিশ্ব শুধু দক্ষ ব্যক্তিদেরকেই চেনে। অদক্ষ ব্যক্তির দিকে অনেকে তাকাতে পারে, কিন্তু সেটুকু পর্যন্ত। নিজেকে দক্ষ হিসেবে প্রস্ত্তত না করার ব্যাপারে হয়তো অনেক ধরনের তুচ্ছ কারণ থাকতে পারে। সে কারণগুলো নিজের জন্যই ক্ষতি বয়ে নিয়ে আসবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here