সুযোগটা কাজে লাগাতে চান মুশফিক

0
63

.

শ্রীলঙ্কা সফরে ভালো কিছুর প্রত্যাশায় মুশফিক। ফাইল ছবিশ্রীলঙ্কা সফরে ভালো কিছুর প্রত্যাশায় মুশফিক। ফাইল ছবিটেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রায় সব লড়াই হয়েছে একতরফা। ১৬ টেস্টের ১৪টিতেই জিতেছে শ্রীলঙ্কা। বাকি দুটি ড্র। কিন্তু সময়ের সঙ্গে দৃশ্যপটে এসেছে পরিবর্তন।

বাংলাদেশকে পেলেই শ্রীলঙ্কার যে বোলার-ব্যাটসম্যানরা জ্বলে উঠতেন, তাঁরা এখন কেউ নেই। লঙ্কানদের আরও একটি দুঃসংবাদ, চোটে পড়ে ছিটকে পড়েছেন তাদের নিয়মিত অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসও। শক্তিমত্তার বিচার তাই টেস্টে এখন বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সমান সমান বললে ভুল হবে না।

কিন্তু বাংলাদেশ কি পারবে এবার সুযোগটা কাজে লাগাতে? মুশফিকুর রহিম আশায় আছেন, ‘সুযোগ তো অবশ্যই। প্রতিটি সিরিজেই নতুন করে সুযোগ থাকে সবার জন্য। ওদের সেরা ক্রিকেটাররা এখন নেই। নিয়মিত অধিনায়ক ম্যাথুসও নেই। তবুও ভুললে চলবে না এটা তাদের ঘরের মাঠে খেলা। আমরাও জানি বাংলাদেশ দল আগের চেয়েও অনেক পরিণত। অনেক ভালো ক্রিকেট খেলছি আমরা। সেদিক দিয়ে একটা সুযোগ তো অবশ্যই। আমরা আমাদের কতটা সেরাটা দিতে পারছি সেটার ওপর নির্ভর করছে সবকিছু।’

এবার লড়াইটা ‘শ্রীলঙ্কা বনাম শ্রীলঙ্কা’ও বলতে পারেন। বাংলাদেশ দলের ‘থিংক ট্যাংকের’ বড় অংশই শ্রীলঙ্কান। বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম বললেন, এটা তাদের বেশ কাজেই দেবে, ‘আমাদের কোচিং স্টাফের বেশির ভাগই শ্রীলঙ্কান। তাঁদের কাছ থেকে অনেক তথ্য জানতে পেরেছি। আশা করি, সেটা আমাদের কাজে দেবে।’

বাংলাদেশ যে দুটি দুটি ম্যাচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ড্র করেছে, তা প্রকৃতির বদান্যতায় নয়, নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ করেই। তার একটিতে অসামান্য অবদান ছিল মুশফিকের। স্মৃতিতে নিশ্চয়ই ফিরে আসছে ২০১৩ সালের সেই গল টেস্ট। মনে পড়বে বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়কের ডাবল সেঞ্চুরি। এবারও দুর্দান্ত কিছু করার আশা মুশফিকের, ‘“নতুন করে শুরু” করতে হবে সবকিছু। গল টেস্টে সাধারণত স্পিনিং উইকেট তৈরি করে ওরা। আমাদের ক্ষেত্রে অনেক ব্যাটিংবান্ধব উইকেট দিয়েছিল সেবার। ফলটা তাই আমাদের পক্ষে এসেছিল। যদি আমাদের অনেক ভালো খেলতে হয়েছিল। ওরা এবার যে উইকেটই তৈরি করুক আমাদের দল এখন অনেক ভারসাম্যপূর্ণ। স্পিনার, পেসার, অলরাউন্ডার সবই আছে দলে।’

এ সফরেই বাংলাদেশ খেলবে শততম টেস্ট। পি সারা ওভালে হতে যাওয়া ঐতিহাসিক ম্যাচটা স্মরণীয় করে রাখতে চান মুশফিক, ‘এটা একটা মাইলফলক। শততম টেস্ট শুধু আমার জন্য নয়, পুরো জাতির বড় অর্জন। এটা মাথায় রেখে কিছু লক্ষ্য ঠিক করব এবং সেটা অর্জনের চেষ্টা করব, যেটা দেশের সম্মান বয়ে আনবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here